রামপুরে সম্পত্তিগত বিরোধে নিহত দুদু গাজীর দাফন সম্পন্ন

বিশেষ প্রতিনিধি: চাঁদপুর সদর উপজেলার ৫নং রামপুর ইউনিয়নে সম্পত্তিগত বিরোধে প্রতিপক্ষ একই বাড়ির শাহজাহান গাজীর ছেলে ভাতিজা ইকবালের ঘুষির আঘাতে নিহত দুদু গাজী (৭০) এর দাফন সম্পন্ন হয়েছে। ১৫ অক্টোবর রবিবার দুপুর ২টায় ছোট সুন্দর এ.আলী. উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্নে জানাজা শেষে পারিবারিক কবরস্থানে দাফন করা হয়।

জানাজার নামাজে ইমামতি করেন ছোট সুন্দর বাজার মসজিদের পেশ ইমাম ক্বারী মো. জাকারিয়া মিয়াজি।
জানাজার নামাজ পূর্বে সংক্ষিপ্ত বক্তব্য রাখেন ৫নং রামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আল-মামুন পাটওয়ারী ও মরহুমের বড় ছেলে মো. মনির গাজী।

জানাজার নামাজে রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংবাদিক ও মরহুমের আত্মীয় স্বজনসহ এলাকার ধর্মপ্রাণ মুসল্লিগণ অংশগ্রহন করেন।

উল্লেখ্য, হেলাল গাজী গংরা মরহুম দুদু গাজীদের নিজ সম্পত্তিতে অন্যায়ভাবে ঘর নির্মাণ করে। এ ঘটনায় আদালতে মামলা চলমান রয়েছে। ১৪ অক্টোবর শনিবার সকাল ১১টায় ওই সম্পত্তিতে পল্লী বিদ্যুতের লোকজন বৈদ্যুতিক সংযোগ দিতে আসলে দুদু গাজী বাধা প্রদান করেন।

এতে ক্ষিপ্ত হয়ে হেলাল, রাসেল, শাহজাহান, শরীফ, ইকবালসহ ৮-১০ জন দুদু গাজীকে এলোপাতড়ি মারধর করেন। একপর্যায়ে ইকবাল দুদু গাজীর বুকে ঘুষি মারলে মাটিতে লুঠিয়ে পরে। পরে মরহুমের বড় ছেলে মো. মনির গাজীর ডাক চিৎকারে তার পরিবারের ও আশপাশের লোকজন সহ তাকে উদ্ধার করে চাঁদপুর সদর হাসপাতালে নিয়ে আসলে ডাক্তার মৃত ঘোষণা করে।

রামপুর ইউনিয়নে দখলদারিত্ব ও সন্ত্রাসীদের উৎপাতে সাধারণ মানুষ নানান ভাবে হয়রানি ও ক্ষতিগ্রস্থের স্বিকার হচ্ছে। আজকে এই ভূমীদস্যু ও সন্ত্রাসীদের ইন্ধনে নিজের সম্পদ থেকে উচ্ছেদ করে দিয়েও ক্ষ্যান্ত হয়নি তারা। সম্পত্তির জন্য জীবন দিতে হলো দুদু গাজীর। এ হত্যার বিষয়টি নিয়ে এলাকায় থমথম অবস্থা বিরাজ করছে।

সম্পর্কিত খবর